বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২

এশিয়া কাপে কি চমক দেখাতে পারবে আফগানিস্তান

ক্রীড়া প্রতিবেদক

২৫ আগস্ট ২০২২, ০৭:১৪ অপরাহ্ন

এশিয়া কাপে কি চমক দেখাতে পারবে আফগানিস্তান

এ মাসের ২৭ তারিখ থেকে শুরু হতে যাচ্ছে এশিয়া কাপের জমজমাট আসর। প্রতিযোগিতাটির ১৫তম এ আসরকে সামনে রেখে পাঠকদের জন্য দল বিশ্লেষণের ধারাবাহিক প্রতিবেদনের প্রথম পর্ব থাকছে এ লেখায়। এ পর্বে বর্ণনা করা হয়েছে আফগানিস্তানের শক্তি ও দুর্বলতার 

আফগানিস্তান দল

হযরতউল্লাহ জাজাঈ, রহমানউল্লাহ গুরবাজ, হাশমতউল্লাহ শাহিদি, ইবরাহিম জাদরান, নাজিবউল্লাহ জাদরান, মোহাম্মদ নবি (অধিনায়ক), আফসার জাজাঈ, আজমতউল্লাহ ওমারজাঈ, ফরিদ আহমেদ মালিক, ফজলহক ফারুকী, করিম জানাত, মুজিব উর রহমান, নাভিন উল হক, নুর আহমাদ, রশিদ খান এবং সামিউল্লাহ শেনওয়ারি। স্টান্ডবাই- নিজাত মাসুদ, কাইস আহমেদ এবং শরাফউদ্দিন আশরাফ।

শক্তির জায়গা

আফগানিস্তানের শক্তির জায়গা মূলত তাদের স্পিন বোলিং লাইনআপ। রশিদ খান, মুজিব উর রহমান, মোহাম্মদ নবিদের মতো বিশ্বসেরা কয়েকজন স্পিনার রয়েছেন দলে। বর্তমান সময়ে যে কয়জন লেগ স্পিনার আছেন, রশিদকে তো তাদের অন্যতম একজনই মনে করা হয়। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির প্লেয়ার র‌্যাঙ্কিংয়ে তার স্থান পাঁচে। রশিদের নামের পাশে ৬৭৯ রেটিং পয়েন্ট। ৬২০ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে মুজিব আছেন ১৬ নম্বরে। তরুণ নুর আহমাদকেও রহস্য স্পিনার মনে করেন অনেকে। আইসিসি র‌্যাঙ্কিংয়ে নবির অবস্থান ৪৬ নম্বরে। আফগানিস্তানের শক্তির জায়গা বলা যেতে পারে তাদের টপ অর্ডারের ব্যাটারদেরও। হযরতউল্লাহ জাজাঈ, রহমানউল্লাহ গুরবাজ, জাদরান, নাজিবউল্লাহ ও নবি; টি-টোয়েন্টির পাওয়ার হিটিংয়ের জন্য আফগানিস্তানের অন্যতম সেরা কয়েকটি নাম। এদের তিনজনের স্ট্রাইকরেটই ১৪০- এর ওপরে, রহমানউল্লাহ গুরবাজের স্ট্রাইকরেট ১৩৩.৮৬।

দুর্বলতা

আফগানিস্তানের দুর্বলতার জায়গা হতে পারে তাদের পেস বোলিং লাইনআপ। এশিয়া কাপে অন্য যে পাঁচটি দল অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছে, তাদের পেসারদের তুলনায় কিছুটা পিছিয়েই নবি বাহিনীর পেস আক্রমণ। যদিও সাম্প্রতিক সময়ে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে নাভিন উল হক, ফজলহক ফারুকি ও করিম জানাতরা চমক দেখাচ্ছেন।

এশিয়া কাপে অতীত ইতিহাস

এশিয়া কাপে এ পর্যন্ত দুবার অংশগ্রহণ করেছে আফগানিস্তান। একবার কোয়ালিফায়িং রাউন্ড থেকে বিদায় নেয় তারা। ২০১৪ সালে প্রথম আসরে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছিল আফগানিস্তান। সেবার চার ম্যাচের মধ্যে একটিতে জিতেছিল দল। ২০১৮ সালের আসরে চমক দেখায় আসগর আফগানের নেতৃত্বাধীন দল। ওয়ানডে ফরম্যাটের ওই আসরের গ্রুপ পর্বে দুই ম্যাচের দুটিতেই জয় পায় আফগানিস্তান। প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৯১ রানে ও দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের সঙ্গে ১৩৬ রানের বিশাল ব্যবধানে জয় পায় তারা। সুপার ফোরে তিন ম্যাচের মধ্যে একটি ম্যাচ টাই করতে সক্ষম হয়।

উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স

এশিয়া কাপে উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স করাদের মধ্যে আফগানিস্তানের অন্যতম নাম মোহাম্মদ শাহজাদ ও হাশমতউল্লাহ শাহিদি। ২০১৮ সালের আসরে শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ টাই করার ম্যাচে ১২৪ রানের ইনিংস খেলেছিলেন শাহজাদ। একই আসরে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৯৭ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন শাহিদি, যদিও শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি তাদের হারতে হয়েছিল ৩ উইকেটে।


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন