বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪

চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ক্রিকেট ২২ ফেব্রুয়ারি শুরু, খেলা গড়াবে কক্সবাজারেও

ক্রীড়া প্রতিবেদক

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন

চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ক্রিকেট ২২ ফেব্রুয়ারি শুরু, খেলা গড়াবে কক্সবাজারেও

চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের পাশাপাশি এবার কক্সবাজার স্টেডিয়ামেও গড়াবে সিজেকেএস প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের খেলা। যেটি চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার ইতিহাসে প্রথমবার। মাঠ সংকটের কারণে এবং লিগের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার জন্য তারা এই প্রথম নিজেদের একটি ইভেন্ট আয়োজন করতে যাচ্ছে কক্সবাজার জেলায়।

চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার (সিজেকেএস) ব্যবস্থাপনায় ও ইস্পাহানি গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতায় চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি থেকেই শুরু হচ্ছে। চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী ম্যাচে অংশ নিবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চট্টগ্রাম আবাহনী ও প্রিমিয়ারে নবাগত আগ্রাবাদ নওজোয়ান ক্লাব। সকাল ৯ টায় লিগের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন বিসিবি পরিচালক ও সিজেকেএস সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে ইস্পাহানী গ্রুপের  অব ইন্ডাষ্ট্রিজ এর চেয়ারম্যান মীর্জা সালমান ইস্পাহানি উপস্থিত থাকবেন। 

এবারের প্রিমিয়ার লিগে যথারীতি ১২টি দল অংশ নিচ্ছে। দলগুলো হচ্ছে- চট্টগ্রাম আবাহনী লি., চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ (চবক) ক্রীড়া সমিতি, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র (লাল), ব্রাদার্স ইউনিয়ন, রাইজিং স্টার ক্লাব, পাইরেটস অব চিটাগাং, শহীদ শাহজাহান সংঘ, ইস্পাহানী এসসি, সিটি কর্পোরেশন একাদশ, ফ্রেন্ডস ক্লাব, চট্টগ্রাম মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব এবং আগ্রাবাদ নওজোয়ান ক্লাব। দলগুলো সরাসরি লিগ পদ্ধতিতে খেলবে। 

লিগ শুরু উপলক্ষে সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সিজেকেএস কনফারেন্স রুমে ক্রিকেট কমিটি কর্তৃক এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সিজেকেএস ক্রিকেট কমিটির সম্পাদক আবদুল হান্নান আকবর। তিনি জানান,  ‘প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচসমূহ বরাবরের মতো চট্টগ্রাম এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে হলেও এবার প্রথমবারের মতো লিগের ৩য় রাউন্ডের খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হবে কক্সবাজার জেলা স্টেডিয়ামে।’  তিনি আরও জানান, ‘এবারের লিগের বাজেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ লক্ষ ৩৬ হাজার টাকা। স্পন্সর ইস্পাহানী গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ পুরো ব্যয় বহন করবে।’ 

চট্টগ্রামের লিগের খেলা কক্সবাজারে আয়োজনের বিষয়টির ব্যাখ্যা দেন সিজেকেএস সহ সভাপতি মো. হাফিজুর রহমান। তিনি জানান, ‘চট্টগ্রামের প্রিমিয়ার লিগের খেলাগুলো এম এ আজিজ স্টেডিয়াম এবং আন্তর্জাতিক ভেন্যু জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হতো। এবার জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম লিগ চলাকালীন কিছুটা সময় শ্রীলংকা সিরিজ নিয়ে ব্যস্ত থাকবে। এছাড়া ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ উপলক্ষে এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে কনসার্টের আয়োজন করা হবে। সবমিলিয়ে ৬দিন সময় নষ্ট হবে। এসব বিষয় মাথায় রেখে লিগের খেলা চলমান রাখার স্বার্থে চট্টগ্রামের মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স এবং বন্দর স্টেডিয়াম মাঠের কথা ভাবা হয়েছিল। কিন্তু এসব জায়গায় মাঠ তৈরি করতে সময়ক্ষেপন হবে বিধায় আবারো বিকল্প চিন্তা করতে হয়েছে। অংশগ্রহনকারী দল এবং সংশ্লিষ্টদের সাথে আলাপ করে প্রথমবারের মতো প্রিমিয়ার লিগের একটি রাউন্ডের আয়োজন কক্সবাজারে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে একমত হওয়া গেছে। আগামী ৫ হতে ১০ মার্চ প্রিমিয়ার লিগের ৩য় রাউন্ডের খেলাসমূহ কক্সবাজার স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।’ 

হাফিজুর রহমান আশাবাদ ব্যক্ত করে জানান প্রথমবারের মতো চট্টগ্রামের প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের আংশিক খেলা কক্সবাজারে স্থানান্তর হওয়া একটা নতুন সংযোজন। এতে লিগের খেলায় বাড়তি আমেজের সৃষ্টি হবে। তিনি আরো জানান, ‘অংশগ্রহণকারী দলগুলোও ব্যস্তসূচির কারণে বাইরের ভেন্যুতে খেলতে রাজি হয়েছে। এজন্য চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থাও দলগুলোকে আর্থিক সাপোর্ট দেবে।’ 

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয় আসন্ন প্রিমিয়ার লিগের বহিরাগত কোটায় প্রতিটি দল হতে প্রতি ম্যাচে সর্বোচ্চ দুই জন খেলোয়াড় অংশগ্রহণ করতে পারবে। এক্ষেত্রে যদি কোন দল স্থানীয় প্রিমিয়ার পুলের কোটায় কোন খেলোয়াড় দলভূক্ত না করে তবে সেক্ষেত্রে বহিরাগত কোটা ২ জনের স্থলে ৩ জন খেলোয়াড় প্রতিদিনের খেলায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। 

সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন স্পন্সর প্রতিষ্ঠান ইস্পাহানি টি লি. এর জেনারেল ম্যানেজার ফিন্যান্স এন্ড একাউন্টস শরীফুল ইসলাম। সিজেকেএস সহ সভাপতি মো. হাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন সিজেকেএস অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাহাব উদ্দীন (শামীম), যুগ্ম–সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, নির্বাহী সদস্য গোলাম মহিউদ্দিন হাসান, ইঞ্জিনিয়ার জসীম উদ্দিন, হাসান মুরাদ বিপ্লব, সৈয়দ মোহাম্মদ তানসীর, মো. মুজিবর রহমান, জেলা ক্রীড়া অফিসার হারুন অর রশিদ, সিজেকেএস কাউন্সিলর এস এম ইকবাল মোর্শেদ, ওয়াসিম কামাল রাজা এবং আব্দুল্লাহ আল মামুন।


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন