বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪

প্রিমিয়ার ক্রিকেটে উড়ন্ত সূচনা চট্টগ্রাম আবাহনীর

ক্রীড়া প্রতিবেদক

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৬:২৫ অপরাহ্ন

প্রিমিয়ার ক্রিকেটে উড়ন্ত সূচনা চট্টগ্রাম আবাহনীর

চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের উদ্বোধনী ম্যাচে উড়ন্ত সূচনা করেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চট্টগ্রাম আবাহনী। সেরাজ ফোর এইচ স্পোর্টস একাডেমির নিজস্ব ছাত্রদের নিয়ে গড়া চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে ৬৯ রানে হেরেছে প্রিমিয়ারে নবাগত আগ্রাবাদ নওজোয়ান ক্লাব।

বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে চট্টগ্রাম আবাহনী। তারা নির্দিষ্ট ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৩৩ রান করে। জবাবে, আগ্রাবাদ নওজোয়ান ৪৬.৪ ওভারে ১৬৫ রানে অলআউট হয়ে যায়। 

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে চট্টগ্রাম আবাহনীর ইনিংসের গোড়াপত্তন করেন তাজুল ইসলাম ও মাহাবুব জামান প্লাবন। দলীয় ৩৭ রানের সময় ২৭ বলে এক জোড়া করে চার-ছয়ে ২৬ রান করে আউট হয়ে যান তাজুল। অন্যপ্রান্তে ধীরে শুরু করেও ইনিংস বড় করতে পারেননি প্লাবন। তিনি ৫১টি বল খেলে মাত্র ১৩ রান করেন। এরপর সানজু ব্যাট করতে নেমে সেও শ্লথ গতিতে ব্যাট করে। তিনি ৫৯ বল খেলে ২১ রান করেন।

তবে, চট্টগ্রাম আবাহনীর ইনিংসে রানের চাকা সচল রাখার কাজটি শুরু করেন মোহাম্মদ শোয়েব। তার সাথে হাত খোলে খেলেন জাতীয় তারকা সাইফ হাসান। শোয়েব আউট হওয়ার আগে ৭৪ বলে খেলেন ৫৬ রানের ইনিংস। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ৭টি চার আর ২টি ছয়ে। পাশাপাশি সাইফ খেলেন ৪৯ বলে ৪৪ রানের ইনিংস। তার ইনিংসে ছিল ২টি করে চার আর ছয়। 

শোয়েব আর সাইফের বিদায়ের পর আবাহনীর রানকে দ্রুত বড় করার লক্ষ্যে ঝোড়ো স্টাইলে ব্যাটিং করেন মহিউদ্দিন আর তৈয়বুর পারভেজ। বিশেষ করে মহিউদ্দিনের ছোট ক্যামিও ইনিংসে চট্টগ্রাম আবাহনী পায় ২৩৩ রানের ফাইটিং স্কোর। 

মহিউদ্দিন মাত্র ২২ বলে এক জোড়া করে চার-ছয়ে ৩২ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন। পারভেজ অপরাজিত থাকেন ১৬ রানে।

জবাব দিতে নেমে চট্টগ্রাম আবাহনীর অধিনায়ক আবু বক্বর জীবনের স্পিন বিষে 'নীল' হতে থাকে আগ্রাবাদ নওজোয়ানের ইনিংস। মাত্র ২৩ রান তুলতেই নওজোয়ান হারিয়ে ফেলে ৪ উইকেট। এর সবগুলোই তুলে নেন জীবন। 

এরপর ৪-৬ নম্বর ব্যাটার মিনহাজ সাকিব, ইফতেখার ইফতি আর মিনহাজ উদ্দিন মিলে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তুলেন। কিন্তু সেটি আবাহনীর জয় বিলম্বিত করা ছাড়া আর কিছু করতে পারেনি। এই তিনজনের বিদায়ের পর নওজোয়ানের বাকি উইকেটগুলো টপাটপ নিয়ে নেন শোয়েব ও সাইফ।

নওজোয়ানের পক্ষে ইফতেখার ইফতি সর্বোচ্চ ৪৮ রান করেন। মিনহাজ উদ্দিনের ব্যাট থেকে আসে ৪১ রান। এছাড়া মিনহাজ সাকিব ৩২ এবং উদ্বোধনী ব্যাটার সাব্বির করেন ১৭ রান।

আবাহনীর হয়ে জীবন ৮ ওভার বল করে ১৮ রান দিয়ে নেন ৫ উইকেট।


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন