বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২

‘ধর্ষক’ ক্রিকেটার লামিছানেকে নিষিদ্ধই করল নেপাল

ক্রীড়া প্রতিবেদক

০৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:২৬ অপরাহ্ন

‘ধর্ষক’ ক্রিকেটার লামিছানেকে নিষিদ্ধই করল নেপাল

নেপাল অধিনায়ক সন্দ্বীপ লামিছানের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগই উঠেছে। ধর্ষণের অভিযোগটা লামিছানে অবশ্য অস্বীকার করেছিলেন। নেপাল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনও বিষয়টা নিয়ে নিরব দর্শকের ভূমিকাতেই ছিল এতদিন। তবে কাঠমান্ডুতে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হতেই নিরবতা ভাঙল নেপাল ক্রিকেট। তাকে ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধই করে দিল দেশটির ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থাটি।

বৃহস্পতিবার রাতে জানা যায় লামিছানের বিরুদ্ধে কাঠমান্ডু পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করা হয়। তখন অবশ্য সিপিএল খেলতে তিনি অবস্থান করছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজে। জ্যামাইকা তালাওয়াসের হয়ে অবশ্য এক ম্যাচেও মাঠে নামা হয়নি তার। তবে গতকাল বৃহস্পতিবার জ্যামাইকা জানিয়েছে, তিনি টুর্নামেন্ট ছাড়বেন শিগগিরই।

এখানেই শেষ নয়, লামিছানেকে অতি শিগগির কাঠমান্ডু পুলিশের কাছে রিপোর্ট করার আদেশও দেওয়া হয়েছে। এরপরই আসে নেপাল কর্তৃপক্ষের বিবৃতি। সেখানে নেপাল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত বিক্রম মাল্লা জানান, লামিছানের এই নিষেধাজ্ঞা তদন্ত শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত চলবে। সিএএন বোর্ডের এক সভার পরই তাকে নিষিদ্ধ করা হয়। 

এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে লামিছানে অবশ্য আত্মপক্ষ সমর্থনে একটা টুইট করেছেন। সেখানে তিনি বলেছেন, তিনি সিপিএল ছেড়ে নেপালে ফিরছেন। নিজেকে নির্দোষ দাবি করে তিনি বলেছেন এইসব দাবি ভিত্তিহীন। 

২২ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার নেপালের ইতিহাসের সবচেয়ে হাই-প্রোফাইল খেলোয়াড়। বিশ্বজুড়ে টি-টোয়েন্টি লিগে খেলে বেড়ান তিনি। আইপিএল থেকে শুরু করে বিগব্যাশ, লঙ্কান প্রিমিয়ার লিগ, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ও ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে খেলেছেন তিনি।

২০১৮ সালে মাত্র ১৭ বছর বয়সে আইপিএল নিলাম থেকে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসে নাম লিখিয়ে আলোচনায় আসেন তিনি। সে বছর মে মাসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার। এরপর থেকে তিনি নেপালের হয়ে খেলেছেন ৩০টি ওয়ানডে ও ৪৪টি টি-টোয়েন্টি।

২০২১ সালের ডিসেম্বরে জ্ঞানেন্দ্র মাল্লাকে সরিয়ে তাকে দেশটির অধিনায়ক করা হয়। সেই তিনিই এখন নিষিদ্ধ হলেন ধর্ষণের অভিযোগ মাথায় নিয়ে। 


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন