বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২

আম্পায়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের মাস্টার্স ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন ব্রাদার্স

ক্রীড়া প্রতিবেদক

২৩ জুলাই ২০২২, ০৯:৩২ পূর্বাহ্ন

আম্পায়ার্স অ্যাসোসিয়েশনের মাস্টার্স ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন ব্রাদার্স

চট্টগ্রাম ক্রিকেট আম্পায়ার্স অ্যান্ড স্কোরার্স অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত ইস্পাহানী টি-টোয়েন্টি মাস্টার্স কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন ক্লাব। 

শুক্রবার (২২ জুলাই) এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টের ফাইনালে ব্রাদার্স ইউনিয়ন ক্লাব ৭ উইকেটে ওপিএকে পরাজিত করে। ব্রাদার্সের বোলারদের বিধ্বংসী বোলিং তোপের মুখে পড়ে মোটেও সুবিধা করতে পারেনি ওপিএ। বিশেষ করে পংকজ এবং জকির বোলিং তোপে অল্প রানেই গুটিয়ে যায় ওপিএ। তাদের দেয়া অল্প রান তাড়া করতে নেমে জয়ের বন্দরে পৌঁছাতে মোটেও বেগ পেতে হয়নি ব্রাদার্স ইউনিয়নকে। 

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ওপিএ ১৯.১ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে মাত্র ৬৮ রান সংগ্রহ করে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন ইনিংসের সুচনা করতে নামা কায়সার পারভেজ। এছাড়া দুই অংকের ঘরে যেতে পেরেছেন মাত্র একজন। তিনি হলেন ১৭ রান করা রয়্যাল দাশ। অতিরিক্ত থেকে আসে ১২ রান। বাকি ব্যাটারদের কেউই দুই অংকের ঘরে যেতে পারেনি। ব্রাদার্স ইউনিয়নের পক্ষে ৩.১ ওভার বল করে মাত্র ৯ রান খরচায় ৪ উইকেট নিয়েছেন পেসার পংকজ দে। আর ৪ ওভার বল করে ১১ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন জকি। এছাড়া একটি করে উইকেট নিয়েছেন কামাল হোসেন এবং মোমিনুল হক। 

৬৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১৮ রানে প্রথম উইকেট হারায় ব্রাদার্স ইউনিয়ন। তবে শেষ পর্যন্ত ১৩.৫ ওভারে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষ্যে পৌছে যায় ব্রাদার্স ইউনিয়ন। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৭ রান করে অপরাজিত থাকেন ওপেনার জিয়াউর রহমান রানা। ২৩ বলে ২৫ রান করে অপরাজিত থাকেন মাসু উদ দৌলা। রানের খাতা খোলার আগে ফিরেছেন সফদার আলি এবং খুররম। এছাড়া ১৮ বলে ১৫ রান করেন মাসুদ পারভেজ। ওপিএ এর পক্ষে তিনটি উইকেটই নিয়েছেন কায়সার পারভেজ ১৬ রান খরচায়। বল হতে দুর্দান্ত করা পংকজ দে নির্বাচিত হয়েছেন ফাইনালের ম্যাচ সেরা।

খেলা শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার বিতরণ করেন চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম ক্রিকেট আম্পায়ার্স অ্যান্ড স্কোরার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অ্যাডভোকেট শাহীন আফতাবুর রেজা চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সহসভাপতি আলী আব্বাস। 

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্পন্সর প্রতিষ্ঠান ইস্পাহানী গ্রুপ অব কোম্পানিজের জেনারেল ম্যানেজার গোলাম মর্তুজা। এছাড়া পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিজেকেএস সহসভাপতি হাফিজুর রহমান, দিদারুল আলম চৌধুরী, যুগ্ম-সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, সিজেকেএস নির্বাহি সদস্য এবং চট্টগ্রাম ক্রিকেট আম্পায়ার্স অ্যান্ড স্কোরার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবদুল হান্নান আকবর, সিজেকেএস নির্বাহি সদস্য সৈয়দ আবুল বশর, জি এম হাসান, নাসির মিয়া, দিদারুল আলম, হারুন অর রশিদ, সিজেকেএস কাউন্সিলর এবং স্পন্সর ইস্পাহানী গ্রুপের প্রতিনিধি আবদুল্লাহ আল মামুন, চট্টগ্রাম ক্রিকেট আম্পায়ার্স অ্যান্ড স্কোরার্স অ্যাসোসিয়েশনের সহসভাপতি আবদুল আউয়াল বাবু, সুজিত রায় তমাল, অতিরিক্ত সাধারন সম্পাদক শওকত হোসেন, সিজেকেএস কাউন্সিলর এনামুল হক, আনজুমান আরা বেগম, মকসুদুর রহমান বুলবুল, আলি হাসান রাজু, চট্টগ্রাম ক্রিকেট আম্পায়ার্স অ্যান্ড স্কোরার্স অ্যাসোসিয়েশনের কোষাধ্যক্ষ সরোয়ার হোসেন বাবু, জয়নাল আবেদীন, আরিফ উদ্দিন রাসেলসহ অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকর্তা এবং সদস্যবৃন্দ। 

পরে অতিথিবৃন্দ চ্যাম্পিয়ন এবং রানার্স আপ দলের হাতে ট্রফি তুলে দেন। উল্লেখ্য এবারের টুর্নামেন্টে ছয়টি দল অংশ গ্রহণ করে। 


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন