শুক্রবার, ৭ অক্টোবর ২০২২

শ্রীলঙ্কার মধুর প্রতিশোধে সুপার ফোরে সুপার শুরু

এশিয়া কাপ

দেশ স্পোর্টস ডেস্ক

০৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:০০ পূর্বাহ্ন

শ্রীলঙ্কার মধুর প্রতিশোধে সুপার ফোরে সুপার শুরু

মুজিবদের দর্শক বানিয়ে ৪ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় শ্রীলঙ্কা

এ যেন মধুর প্রতিশোধ। গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে আফগানদের কাছে বাজেভাবে হেরেছিল শ্রীলঙ্কা। আজ হলো তার প্রতিশোধ পর্ব। বাংলাদেশকে হারিয়ে উজ্জীবিত শ্রীলঙ্কা ৫ বল হাতে রেখেই আফগানদের হারিয়ে দিয়েছে ৪ উইকেটের ব্যবধানে।

ম্যাচে ছিল টানটান উত্তেজনা। বারবার ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ বদল হচ্ছিল। ভয়ডরহীন ব্যাটিংয়ে শেষ পর্যন্ত জয় হলো শ্রীলঙ্কার। আর আফগানিস্তান পেল টুর্নামেন্টে প্রথম হারের স্বাদ।

রান তাড়ায় নেমে ফজলহক ফারুকীর করা ইনিংসের প্রথম বলেই বাউন্ডারি হাঁকান পাথুম নিশাঙ্কা। ৬.২ ওভারে ওপেনিং জুটিতে চলে আসে ৬২ রান। ১৯ বলে ২ চার ৩ ছক্কায় ৩৬ রান করা কুশল মেন্ডিস নাভিন উল হকের শিকার হলে এই জুটির অবসান হয়। পাথুম নিশাঙ্কা ফেরেন ২৮ বলে ৩৫ করে। উইকেট পতন হতে থাকলেও শ্রীলঙ্কার ব্যাটাররা আক্রমণ মানিসকতা থেকে একচুলও সরে দাঁড়াননি। প্রায় সবাই আফগান বোলারদের ওপর চড়াও হয়েছেন।

রশিদ খানের বলে বোল্ড হওয়ার আগে দানুশকা গুনাথিলাকা করেন ২০ বলে ৩৩ রান। ভানুকা রাজাপাক্ষের ১৪ বলে ৩১ রানের গুরুত্ব অপরিসীম। হাসরাঙ্গার বিধ্বংসী ব্যাটে ১৯তম ওভারেই স্কোর সমান হয়ে যায়। শেষ ওভারে দরকার পড়ে মাত্র ১ রানের। ফজল হক ফারুকীর করা শেষ ওভারের প্রথম বলটিই সীমানাছাড়া করে দলকে ৪ উইকেটে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন হাসারাঙ্গা। তিনি অপরাজিত থাকেন ৯ বলে ১৬* রানে।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৭৫ রান সংগ্রহ করে আফগানিস্তান। ৪৬ রানের ভালো ওপেনিং জুটি উপহার দেন হজরতুল্লাহ জাজাই এবং রহমানুল্লাহ গুরবাজ। পঞ্চম ওভারে ১৬ বলে ১৩ রান করা জাজাই বোল্ড হলে ভাঙে জুটি। শিকারী দিলশান মাদুশাঙ্কা। মাত্র ২২ বলে ফিফটি পূরণ করেন রহমানুল্লাহ। দ্বিতীয় উইকেটে ইব্রাহিম জারদানের সঙ্গে তার জুটি জমে ওঠে। ১৩তম ওভারে তিন অংক স্পর্শ করে আফগানদের স্কোর। দারুণ ব্যাটিংয়ে রহমানুল্লা এগিয়ে যাচ্ছিলেন সেঞ্চুরির দিকে। মনে করা হচ্ছিল, আসরের প্রথম সেঞ্চুরিটা আজই দেখা যাবে।

কিন্ত তা হলো না। ৪৫ বলে ৮৪ রান করে আসিথা ফার্নান্দোকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ধরা পড়েন হাসারাঙ্গার হাতে। তার ইনিংসে ছিল ৪টি বাউন্ডারি আর ৬টি ছক্কার মার। এর সাথে অবসান হয় ৬৪ বলে ৯৩ রানের দ্বিতীয় উইকেট জুটির। ১০ বলে ১৭ করা নাজিবুল্লাহ জারদান রান-আউট হয়ে যান। ১৯তম ওভারে জোড়া আঘাত হানেন মহিশ থিকশানা। চতুর্থ বলে ফিরিয়ে দেন ৪০ রান করা (৩৮ বল) ইব্রাহিম জারদানকে। পরের বলেই কট অ্যান্ড বোল্ড হয়ে ফিরেন আফগান অধিনায়ক মোহাম্মদ নবি (১)। শেষ ওভারের শেষ বলে আফগানদের ৬ষ্ঠ উইকেটের পতন ঘটে রশিদ খানের (৯) রান-আউটে। ২০ ওভারে সংগ্রহ দাঁড়ায় ৬ উইকেটে ১৭৫ রান। ২টি উইকেট  নিয়েছেন মাদুশাঙ্কা। ১টি করে নিয়েছেন মহিশ থিকশানা এবং আসিথা ফার্নান্দো।


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন