বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২

রাতে মাঠে নামছে ব্রাজিল, ভোরে আর্জেন্টিনা

দেশ স্পোর্টস ডেস্ক

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:২০ অপরাহ্ন

রাতে মাঠে নামছে ব্রাজিল, ভোরে আর্জেন্টিনা

বিশ্বকাপের খুব বেশি দিন বাকি নেই। আজ থেকে ঠিক ৫৮ দিন পর মাঠে গড়াবে ফুটবলের মহাযজ্ঞ। তার আগে শেষ আন্তর্জাতিক ফুটবলের উইন্ডোটাও শুরু হয়ে গেছে। বিশ্বকাপের আগে সবশেষ প্রস্তুতি ম্যাচে আজ রাতে মাঠে নামছে ব্রাজিল। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনা ভক্তদের অপেক্ষাটাও দীর্ঘায়িত হচ্ছে না। আগামীকাল সকালেই আর্জেন্টিনা নামবে মাঠে।

তবে দুই দল এই ম্যাচে মাঠে নামবে নতুন রূপ নিয়ে। বিশ্বকাপের কয়েক মাস আগেই নিজেদের বিশ্বকাপ জার্সি প্রকাশ করে ফেলেছে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। সেই নতুন জার্সি পরেই চলতি মাসের দুই ম্যাচে মাঠে নামবেন নেইমার ও লিওনেল মেসিরা।

ব্রাজিলের ম্যাচটা হবে আফ্রিকান দল ঘানার বিপক্ষে। রাত ১২টা ৩০মিনিটে ফ্রান্সের স্তাদ ওশানে মাঠে নামবেন নেইমাররা। আর আর্জেন্টিনা লড়বে হন্ডুরাসের বিপক্ষে। মিয়ামির হার্ডরক স্টেডিয়ামে আগামীকাল সকাল ৬টায় মাঠে নামবেন মেসিরা।

ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনা এবারের বিশ্বকাপে যাচ্ছে ফেভারিট হিসেবেই। শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিটা সেরে নিচ্ছে দুই দলই। লাতিন আমেরিকার দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীই এবারের আসরের বাছাইপর্বে ছিল অজেয়, হারেনি কোনো ম্যাচেই। 

ব্রাজিলের বিশ্বকাপ দল নিয়ে আলোচনা খুব একটা নেই। তবে দারুণ ছন্দে থাকা নেইমার, ভিনিসিয়াস জুনিয়র, রাফিনিয়া, রিচার্লিসন, ফিরমিনো, গ্যাব্রিয়েল জেসুস, রদ্রিগো গোয়েজদের মতো তারকারা যে দলের আক্রমণভাগ সামলান, সেই দল কী করে বিশ্বকাপের দাবিদার হয় না? 

তবে দলটির দুর্বলতা হয়ে আছে দুই ফুলব্যাক পজিশন। বিশ্বকাপের আগে যে তিতে সেই প্রশ্নেরই সমাধান চাইবেন তা বলাই বাহুল্য। ঘানার বিপক্ষে এই দুই জায়গায় দেখা যেতে পারে দানিলো আর রেনান লোডিকে। গোলমুখে অ্যালিসন বেকার আর তার সামনে দুই ডিফেন্ডার হিসেবে থাকবেন মারকিনিয়োস আর থিয়াগো সিলভা। মাঝমাঠে ক্যাসেমিরোর সঙ্গে থাকতে পারেন ফ্রেড। লুকাস পাকেতার জায়গা হতে পারে আজ বেঞ্চে। সামনে নেইমার আর রিচার্লিসনের সঙ্গে দুই উইংয়ে থাকতে পারেন ভিনিসিয়াস জুনিয়র আর রাফিনিয়া।

আর্জেন্টিনাও আছে দারুণ ছন্দে। তবে এই ম্যাচে দলটির জন্য খানিকটা দুশ্চিন্তার কারণ হতে পারে ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো আর লিসান্দ্রো মার্টিনেজের ভিসা জটিলতা। দলের সঙ্গে থাকলেও যুক্তরাষ্ট্রের ওয়ার্ক পারমিট পাননি দু’জনে, ফলে এই ম্যাচে খেলা নিয়েও সৃষ্টি হয়েছে শঙ্কা। তাদের দুজনের অনুপস্থিতিতে আলবিসেলেস্তে রক্ষণে দেখা যেতে পারে হেরমান পেৎজেলা আর নিকলাস অটামেন্ডিকে। দুই ফুলব্যাক হিসেবে থাকবেন নাহুয়েল মলিনা আর মার্কোস আকুনইয়া। গোলমুখ সামলাবেন এমিলিয়ানো মার্টিনেজ।

মাঝমাঠে স্ক্যালোনির পছন্দের ত্রয়ী রদ্রিগো ডি পল, লিয়ান্দ্রো পারেদেস ও জিওভানি লো চেলসোকে দেখার সম্ভাবনাই বেশি। দলটির আক্রমণে লিওনেল মেসি তো খেলবেনই, সঙ্গে খেলবেন আনহেল ডি মারিয়া আর লাওতারো মার্টিনেজ।


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন