মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে লড়াইয়ে নামতে মুখিয়ে আফগানিস্তান

এশিয়া কাপ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

২৭ আগস্ট ২০২২, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে লড়াইয়ে নামতে মুখিয়ে আফগানিস্তান

এশিয়া কাপের ১৫তম আসর বসার কথা ছিল শ্রীলঙ্কায়। কিন্তু লঙ্কানদের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সংকটের কারণে বাধ্য হয়েই এশিয়া কাপ আয়োজন থেকে সরে দাঁড়ায় তারা। যদিও কাগজে-কলমে আয়োজক হিসেবে থাকছে শ্রীলঙ্কাই। তবে এশিয়া কাপের এবারের আসরটি শুরু হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে। 

শনিবার (২৭ আগস্ট) পর্দা উঠছে এশিয়ান ক্রিকেটের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ এই আসরের। প্রথম ম্যাচে ‘ঘরের মাঠে’ ‘স্বাগতিক’ শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হচ্ছে আফগানিস্তান।  

ছয় দলের এই টুর্নামেন্টে দুটি গ্রুপ। ‘এ’ গ্রুপে রয়েছে ভারত, পাকিস্তান আর বাছাইপর্ব পেরিয়ে আসা হংকং। ‘বি’ গ্রুপে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান। দুই গ্রুপ থেকে সেরা দুই দলকে নিয়ে হবে সুপার ফোরের লড়াই। সেখান থেকে সেরা দুই দল যাবে ফাইনালে।

টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে আজ মুখোমুখি শ্রীলঙ্কা আর আফগানিস্তান। দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত আটটায়।

এমনিতেই টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে আগাম ভবিষ্যৎবাণী করা কঠিন। শক্তিমত্তা আর পরিসংখ্যান বিবেচনায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে লঙ্কানদের হয়তো কিছুটা ফেবারিট ভাবা যেতে পারে।

তবে ২০২০ সালের পর থেকে আফগানিস্তানের টি-টোয়েন্টি রেকর্ড কিন্তু যথেষ্ট ভালো। তারা একটি টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জিতেছে দুটি, একটি ড্র করেছে বাংলাদেশের সঙ্গে।

সেদিক থেকে দেখলে ২০২০ সালের পর শ্রীলঙ্কা টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছে মাত্র একটি। সেটা ভারতের বিপক্ষে। তবে পরিসংখ্যানে হয়তো একটি কথা লেখা নেই, ওই সিরিজে ভারত একদম দ্বিতীয় সারির দল নিয়ে খেলেছে।

ভারতের একটি দল টেস্ট সফরে ছিল ইংল্যান্ডে। এর মধ্যে ৭ জন ক্রিকেটার করোনা আক্রান্ত হওয়ায় লঙ্কানদের বিপক্ষে দ্বিতীয় সারির দলটি হয়ে গিয়েছিল তৃতীয় সারির।

আফগানিস্তান তাদের সর্বশেষ পাঁচ টি-টোয়েন্টির মধ্যে জিতেছে ২টি, শ্রীলঙ্কা মাত্র একটি। সব দিক থেকেই মনে হচ্ছে, আজকের লড়াইটা মোটেই একতরফা হবে না। বরং যে কোনো দলই জিততে পারে।

আর এই গ্রুপটাকে ধরা হচ্ছে গ্রুপ অব ডেথ। এখান থেকে দুটি দল সুপার ফোরে উঠবে। শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তানের সঙ্গে আছে আবার আফগানিস্তান। যার অর্থ, যে দল আফগানদের সঙ্গে হেরে যাবে তাদের বাদ পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা জোরালো।


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন