মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২

সিলেটের সামনে দিশেহারা চট্টগ্রাম, হারলো ৯ উইকেটে

জাতীয় ক্রিকেট লিগ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

১৩ অক্টোবর ২০২২, ০২:৪৬ অপরাহ্ন

সিলেটের সামনে দিশেহারা চট্টগ্রাম, হারলো ৯ উইকেটে

তৃতীয় দিন শেষে চট্টগ্রাম পিছিয়ে ছিল ২ রানে। চট্টগ্রামের হাতে ছিল ৬ উইকেট। চাইলেই ম্যাচটা বাঁচাতে পারতো চট্টগ্রাম। বৃহস্পতিবার তাদের ব্যাটসম্যানদের সারাদিন মাটি কামড়ে উইকেটে থাকলেই হতো। কিন্তু তাদের এত ধৈর্য কোথায়! 

শুধু ব্যাটসম্যানদের কথা বললেই হবে না। সিলেট বিভাগের নাঈম আহমেদের বোলিংও হয়েছে দুর্দান্ত। তার ক্যারিয়ারের প্রথম পাঁচ উইকেটে চট্টগ্রাম বিভাগের মিডল অর্ডার স্রেফ দিশেহারা। ৪ উইকেটে ১৬৯ রানে খেলা শুরু করে চট্টগ্রাম চতুর্থ দিনের সাত সকালে অলআউট ২২১ রানে। ৫২ রান তুলতে ৬ উইকেট হারানো চট্টগ্রাম ম্যাচ হেরেছে দিনের প্রথম সেশনেই। 

নাঈমের ৫ উইকেটের পাশাপাশি ৪ উইকেট পেয়েছেন প্রথম ইনিংসে ফাইফারের স্বাদ পাওয়া নাবিল সামাদ। ৫২ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে সিলেট ১ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায়।  

পারভেজ হোসেন ইমন ১৪ ও ইরফান শুক্কুর ২০ রানে দিন শুরু করেছিলেন। দুজনের কেউই দলের হাল ধরতে পারেননি। চট্টগ্রামের ইরফান ২৩ রানে আউট হন নাঈমের বলে শাহানুরের হাতে ক্যাচ দিয়ে। এরপর পারভেজ ডানহাতি অফস্পিনারকে ডাউন দ্য উইকেটে এসে খেলতে গিয়ে বোল্ড হন ১৬ রানে। 

এরপর ইফতেখার সাজ্জাদ ও হাসান মুরাদের ১৭ রানের দুটি ইনিংসে চট্টগ্রামের রান দুইশ পেরিয়ে যায়। কিন্তু নাঈমকে সামলানোর কোনও পথ তাদের জানা ছিল না। ইয়াসিন আরাফাত মিশুকে বোল্ড করে পাঁচ উইকেটের স্বাদ পাওয়ার পর সিজদাহ করে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন নাঈম।  

২২১ রানে গুটিয়ে গেলে সিলেট বিভাগ ৫২ রানের লক্ষ্য পায়। ইফতেখার সাজ্জাদের বলে সিলেটের অভিজ্ঞ ওপেনার ইমতিয়াজ সাজঘরে ফিরলেও জয় পেতে বেগ পেতে হয়নি। তৌফিক খান তুষারের ৩৫ ও অমিত হাসানের ১৫ রানে সহজেই জয় পায় সিলেট। 

ম্যাচে ৯ উইকেট নিয়ে ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন নাবিল সামাদ। 

এর আগে বুধবার (১২ অক্টোবর) জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সিলেটের বিপক্ষে ৪০.৫ ওভার বল করে ৮ মেডেন সহ ১১৯ রানে একাই ৮ উইকেট শিকার করেছেন হাসান মুরাদ। তার স্পিন ঘূর্ণির মুখে দ্বিতীয় দিন শেষে ৭ উইকেটে ৩০৩ রান তোলা সিলেট আজ বাকি ৩ উইকেটে ৯ রান যোগ করে ৩১২ রানে থেমে গেছে।

প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৪১ রানে অলআউট হওয়া চট্টগ্রাম ১৭১ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয়বারও তেমন সুবিধা করতে পারেনি। 


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন