শুক্রবার, ৭ অক্টোবর ২০২২

৪ বছরে ১৪৪ আন্তর্জাতিক ম্যাচ, কতটুকু প্রস্তুত বাংলাদেশ?

৩৪ টেস্ট, ৫৯ ওয়ানডে ও ৫১ টি-টোয়েন্টি

ক্রীড়া প্রতিবেদক

১৯ জুলাই ২০২২, ০২:২১ অপরাহ্ন

৪ বছরে ১৪৪ আন্তর্জাতিক ম্যাচ, কতটুকু প্রস্তুত বাংলাদেশ?

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) ২০২৩ থেকে ২০২৭ সাল পর্যন্ত ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রাম (এফটিপি) চূড়ান্ত করেছে। এই পাঁচ বছরের চক্রে বাংলাদেশ ৩৪ টেস্ট, ৫৯ ওয়ানডে এবং ৫১ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের থেকে কেবল বেশি ম্যাচ পাচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সব সংস্করণ মিলিয়ে বাংলাদেশের ম্যাচ ১৪৪টি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ খেলবে ১৪৬টি। বলার অপেক্ষা রাখে না, সামনের দিনগুলোতে মাঠে কঠিন সময় কাটাতে হবে বাংলাদেশকে। অতীতে এফটিপিতে বাংলাদেশ কখনোই এতো ম্যাচ পায়নি। তাইতো জাতীয় দলের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে।

জাতীয় দলের নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাক মনে করেন, দীর্ঘ পথ চলায় বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করার ক্রিকেটার পাইপলাইনে রয়েছে এবং বর্তমান স্কোয়াডে যারা রয়েছে, বাইরে রয়েছে তাদের নিয়েই ভালো কিছু করা সম্ভব।

‘আমাদের হাতে বেশ কিছু এক্সাইটিং ক্রিকেটার আছে। আমরা জানি, তারা বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ এবং তাদেরকে সেভাবেই তৈরি করা হচ্ছে। এছাড়া বর্তমান স্কোয়াডের অনেকেই ক্যারিয়ার লম্বা করবে। লিটন, মিরাজ, সোহান, শরিফুল, নাসুম…এদের পথচলা শুরু হলো কেবল। তাদের উপরে আমাদের অনেক বিশ্বাস, ভরসা।  আমাদের বিশ্বাস লম্বা সময়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট ভালো অবস্থাতেই থাকবে।’

সাদা পোশাকে ৩৪ ম্যাচ পেয়েছে বাংলাদেশ। যা আগের চক্রের থেকে ৪টি বেশি। এর ভেতরে বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরও করবে। বাংলাদেশে খেলতে আসবে ইংল্যান্ড, পাকিস্তান। পাঁচ বছরে বাংলাদেশের থেকে বেশি টেস্ট খেলবে ইংল্যান্ড (৪২), অস্ট্রেলিয়া (৪১) এবং ভারত (৩৮)।

তবে ওয়ানডে বাংলাদেশই সবচেয়ে বেশি খেলবে। বাংলাদেশের ৫৯ ম্যাচের পর শ্রীলঙ্কা খেলবে ৫৮ ম্যাচ। এছাড়া বাকি সবগুলো দল ৫০ এর নিচে ম্যাচ খেলবে।

চলমান এফটিপিতে বাংলাদেশ ৩০টির মধ্যে ২৮টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছে। ২টি ম্যাচ খেলবে নভেম্বর-ডিসেম্বরে ভারতের বিপক্ষে। সামনের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ চক্রেও বাংলাদেশের ঘরের মাঠে বড় দলগুলোর বিপক্ষে খেলা রয়েছে। ভারত, পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর বাদে নিউ জিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কাকে আতিথেয়তা দেবে।

এফটিপিতে বিসিবি বিপিএলের জন্য উইন্ডোও পেয়েছে। বছরের শুরুতে জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে হবে বিপিএল। তবে ওই সময় আরও তিনটি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ হবে। অস্ট্রেলিয়ায় বিগ ব্যাশ, সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রিমিয়ার লিগ এবং দক্ষিণ আফ্রিকা প্রিমিয়ার লিগ।

উইন্ডো পেয়ে বিপিএলের সূচিও ঠিক করেছে বিসিবি। ২০২৩ সালে নবম আসর শুরু হবে ৫ জানুয়ারি থেকে। ৪৩ দিনের টুর্নামেন্ট চলবে ১৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। ২০২৪ সালে ৬ জানুয়ারি থেকে ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত টুর্নামেন্ট হবে। এই আসরও ৪৩ দিনের। ২০২৫ সালের প্রথম দিন থেকে বিপিএল শুরু হবে। ৪২ দিনের বিপিএল চলবে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন