মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২

দ্বিতীয় শিরোপার খোঁজে মরিয়া ইংল্যান্ড-পাকিস্তান

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

দেশ স্পোর্টস ডেস্ক

১২ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৫০ অপরাহ্ন

দ্বিতীয় শিরোপার খোঁজে মরিয়া ইংল্যান্ড-পাকিস্তান

দেখতে দেখতে চলে এলো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল। রোববার (১৩ নভেম্বর) মেলবোর্নে ইংল্যান্ড ও পাকিস্তানের ফাইনাল ম্যাচের মধ্য দিয়ে পর্দা নামবে অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপের। ক্রিকেটের ক্ষুদ্র সংস্করণের এই লড়াইয়ে কার ঘরে যাবে শিরোপা?

যে পাকিস্তানের বিশ্বকাপে টিকে থাকা নিয়েই ছিল সংশয়, তারাই এখন শিরোপার মঞ্চে। আর বিশ্বকাপে উত্থান ও পতনের পরও সঠিক পরিকল্পনা থাকায় ঘুরে দাঁড়াতে পেরেছে ইংলিশরা।

পাকিস্তানিদের বিশ্বকাপ সফরটা রোমাঞ্চে ঠাসা। আসর থেকে বাদ পড়ার শঙ্কায় ছিল বাবররা। পরে নাটকীয়ভাবে ফাইনালের মঞ্চে উঠে যায় তারা। ঠিক যেন ১৯৯২ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের পুনঃমঞ্চায়ন। সেই বিশ্বকাপেও ঠিক একইরকম নড়বড়ে অবস্থা ছিল ইমরান খানের পাকিস্তানের। সেবার ধুঁকতে থাকা দলটি অবিশ্বাস্যভাবে সেমিতে জায়গা করে নেয়। তারপর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেমিফাইনাল জিতেছিল। ফাইনালে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছিল তারা ইংল্যান্ডকে। সেবার ইংলিশদের হারিয়ে শিরোপা জিতে নেয় পাকিস্তান।

ম্যাচের আগে শনিবার (১২ নভেম্বর) সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক বাবর আজম বলেন, ‘১৯৯২ সালের সঙ্গে অনেক মিল আছে। এবারও শতভাগ দিয়ে বিশ্বকাপ জয়ের চেষ্টা করবো। আসরের শুরুটা ভালো ছিল না। কিন্তু বাঘের মতো ঘুরে দাঁড়িয়েছি আমরা।’

পাকিস্তানকে হারিয়ে শিরোপা ঘরে তুলতে চায় জস বাটলারা। প্রস্তুতিতে ঘাটতি রাখতে চান না ইংলিশরা। তাই ফাইনালের আগে অনুশীলনে মাঠে নামেন তারা। মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ঘাম ঝরান বাটলার-স্টোকসরা। নেটে ঝালিয়ে নিয়েছেন ব্যাটিংটাও। ওয়ানডের পর এবার টি-টোয়েন্টির রাজত্ব দখলে নিতে মরিয়া থ্রি লায়নরা।

ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার বলেন, ‘টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখেছি বহুবার। বিশ্বকাপে ফাইনালের চাপ অনেক বেশি। এটাকে অন্য ম্যাচের সঙ্গে মেলাতে চাই না। এটা অবশ্যই বিশেষ।’

সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারানো একাদশ নিয়েই মেলবোর্নে নামতে চায় পাকিস্তান। তবে উইনিং কম্বিনেশন ভাঙতে পারে ইংল্যান্ড। সেমিতে ভারতকে ১০ উইকেটে হারালেও ফাইনালে একাধিক পরিবর্তন নিয়ে নামতে পারে তারা। বিশেষ করে ইনজুরি আক্রান্ত মার্ক উড আর দাউইড মালানের জন্য শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করতে চাইছে থ্রি লায়ন্স।    

মুখোমুখি দেখায় বেশ এগিয়ে ইংল্যান্ড। ২৮ ম্যাচের ১৭টিতেই জিতেছে তারা। বিশ্বকাপের আগে ৭ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজেও থ্রি লায়নরা পাকিস্তানকে হারিয়েছিল ৪-৩ ব্যবধানে। তবে বিশ্বকাপ জয়ের হিসাবটা সমানে সমান। এর আগে একবার করে শিরোপা জয়ের অভিজ্ঞতা আছে দু’দলেরই। টানা বৃষ্টি আর বৈরী আবহাওয়ার হুমকি মাথায় নিয়ে শিরোপার খোঁজে নামবে এশিয়ান আর ইউরোপীয় জায়ান্টরা।

মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে রোমাঞ্চকর এক ফাইনালের অপেক্ষায় ক্রিকেট বিশ্ব। পাকিস্তানের স্বপ্ন আবারও ’৯২-এর ইতিহাস ফেরানো। অন্যদিকে ইংল্যান্ড চাইছে, গেল কয়েক বছরের পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে আরও একবার শিরোপার স্বাদ পেতে। তবে সব রোমাঞ্চ ভেস্তে দিতে পারে বৃষ্টি। এমনটা হলে ভাগাভাগি হয়ে যাবে শিরোপা। 


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন