মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪

মুক্তিযোদ্ধার জয়ের রথ থামালো ব্রাদার্স

সিজেকেএস প্রিমিয়ার

ক্রীড়া প্রতিবেদক

২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৪৮ পূর্বাহ্ন

মুক্তিযোদ্ধার জয়ের রথ থামালো ব্রাদার্স

চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে অংশ নেয়া ১২টি দলের মধ্যে মাত্র ২টি দল টানা ছয় ম্যাচ জিতে 'ঈদের ছুটিতে' গিয়েছিল। ১৮ দিনের বিরতির পর শুরু হওয়া সপ্তম রাউন্ডের প্রথম ম্যাচেই ছন্দপতন ঘটে চট্টগ্রাম আবাহনীর। একই রাউন্ডের তৃতীয় ম্যাচে এসে অপরাজিত থাকার তকমায় ইতি টানতে হলো মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র লালকেও। 

সোমবার (২২ এপ্রিল) অনুষ্ঠিত মুক্তিযোদ্ধা বনাম ব্রাদার্স ইউনিয়নের হাই ভোল্টেজ ম্যাচটি নিয়ে সবার দৃষ্টি ছিল চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে। ম্যাচটি জিতে ব্রাদার্সের শিরোপা রেসে থাকা নাকি মুক্তিযোদ্ধার টানা সপ্তম জয় নিয়ে ঘরে ফেরা সেটি ছিল মূল বিষয়। আর তাতে প্রাধান্য বিস্তার করে ম্যাচটি নিজেদের পকেটে পুরে ঘরে ফিরল ব্রাদার্স ইউনিয়ন; অন্যদিকে, প্রথম পরাজয়ের তেতো স্বাদ নিয়ে স্টেডিয়াম ছাড়ে মুক্তিযোদ্ধা।

সকালে টস ভাগ্য অনুকূলে ছিল মুক্তিযোদ্ধার পক্ষে। বিগ ম্যাচে সবাই আগে ব্যাট করে বড় সংগ্রহ করে প্রতিপক্ষকে ছাপে রাখার কৌশল নেয়। সেটির ব্যতিক্রম পথে হাঁটেনি মুক্তিযোদ্ধাও। কিন্তু দিনটি ছিল ব্রাদার্সের। তাই, ২৪৭ রানের মজবুত সংগ্রহ করেও ব্রাদার্সের নিকট ৬ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারতে হয় মুক্তিযোদ্ধাকে।

আগে ব্যাট করতে নেমে মোহাইমিনুল হকের অনবদ্য ৬৭ রান, ইনজামামুল হকের ঝোড়ো ফিফটি, জাতীয় তারকা সাদমান ইসলামের ৪৫ ও রতন দাশের ৪১ রানের বদৌলতে ৪৯.২ ওভারে ২৪৭ রান করে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র (লাল)। 

বল হাতে ব্রাদার্স ইউনিয়নের কাজী কামরুল ইসলাম ৩টি এবং এ এস এম নাকিব, সাখায়াত সাইমন ও আমিনুল ইসলাম বিপ্লব ২টি করে উইকেট নেন।

জয়ের জন্য ২৪৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ব্রাদার্সকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন কফিল উদ্দিন। তিনি ৯ বলে ২০ রানের ক্যামিও ইনিংস খেলে আউট হওয়ার পর উইকেটে এসে তাণ্ডব শুরু করেন শামসুদ্দিন বাপ্পা। তিনি মাত্র ৪৫ বলে ৯টি চার ও আধা ডজন ছয়ে ৮০ রান করে ব্রাদার্সের জয় ত্বরান্বিত করেন।

তবে, এতো ঝড়-ঝাপটার মাঝেও অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে বলের সাথে পাল্লা দিয়ে অপরাজিত সেঞ্চুরি করে দলের জয় নিশ্চিত করেন সাবেক জাতীয় তারকা রকিবুল হাসান। রকিবুল ১০৬ বল মোকাবেলা করে ১৫টি চারে সাজানো ১০৩ রান করেন।

ফলে ব্রাদার্স ইউনিয়ন ৪২.১ ওভারে ৬ উইকেটে প্রয়োজনীয় ২৪৯ রান তুলে নেন। 

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রের রতন দাশ ৩ উইকেট লাভ করেন।


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন