শুক্রবার, ৭ অক্টোবর ২০২২

ভিন্ন ফরম্যাট, ভিন্ন কন্ডিশনেও দক্ষিণ আফ্রিকায় আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ

৩১ মার্চ প্রথম টেস্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৬ মার্চ ২০২২, ১০:০০ পূর্বাহ্ন

ভিন্ন ফরম্যাট, ভিন্ন কন্ডিশনেও দক্ষিণ আফ্রিকায় আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ

দক্ষিণ আফ্রিকায় ঐতিহাসিক সিরিজ জয়। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ দল। এবার ফরম্যাট বদলে টেস্টের লড়াই। তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের দুটি খেলেছিল সেঞ্চুরিয়নে, একটি হয়েছিল জোহানসবার্গে। এবার টেস্ট দুটি হবে ডারবান আর পোর্ট এলিজাবেথে। ভিন্ন ফরম্যাট, অন্যরকম কন্ডিশন- তবুও ওয়ানডে সিরিজের মতো টেস্ট সিরিজ জয়ের ব্যাপারেও আশাবাদী সফরকারীরা।

বাংলাদেশ দলের টেস্ট ফরম্যাটের অধিনায়ক মুমিনুল হক যেমন বলেন, ‘জয়ের ব্যাপারে তো আত্মবিশ্বাসী। অধিনায়ক হিসেবে সবসময় জয় চাই। আগে যা হয়েছে এসব নিয়ে চিন্তা করে লাভ নেই। প্রথম ম্যাচ থেকেই আমি অনেক ফোকাসড। পাঁচ দিন কীভাবে অনেক ডমিনেট করে খেলতে পারি এই চিন্তা করছি। যদিও ফরম্যাট ভিন্ন, কন্ডিশনও একটু অন্যরকম হতে পারে। দিনশেষে এই আত্মবিশ্বাস আর প্রেরণাগুলো কাজে লাগে।’

মুমিনুল টেস্টে ভালো করার রসদ পাচ্ছেন ওয়ানডে সিরিজ জয়ের সুখস্মৃতি থেকে। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকায় সিরিজ তো দূর, কোনো ওয়ানডে জয়ের সুখস্মৃতিই ছিল না লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের। এই সিরিজ জয়ের সঙ্গে নিউজিল্যান্ডে টেস্ট জয়ও আত্মবিশ্বাসী করেছে মুমিনুলকে।

মুমিনুল বলছিলেন, ‘তামিম ভাই, সাকিব ভাই, লিটনের ব্যাটিং, তাসকিনের বোলিং- গত কয়েকদিন খুব উপভোগ করেছি। এটা অবশ্যই টেস্ট দলকে আত্মবিশ্বাস দিবে। কেউ এক ফরম্যাটে ভালো করে অন্য ফরম্যাটে গেলে সেখানে তা দলের জন্য আত্মবিশ্বাস হিসেবে কাজে দেয়।’

যোগ করেন মুমিনুল, ‘নিউজিল্যান্ডে তামিম ভাইও ছিল না, সাকিব ভাইও ছিল না। শুধু মুশফিক ভাই ছিল। অনেককে হয়ত পাব না, তবে আমি সবসময় আশাবাদী থাকতে পছন্দ করি। এখন তামিম ভাই আছেন। তার ভূমিকা আমার দলে খুব গুরুত্বপূর্ণ। দলের কাজ সহজ হল। তামিম ভাই আসলে টপ অর্ডারের কাজটা সহজ হয়ে যায়। বিশেষ করে দেশের বাইরে। তাসকিন গত ১-২ বছর ধরে খুবই ভালো বল করছে। এই সিরিজেও আমরা ভালো কিছু করব বলে আশাবাদী।’

৩১ মার্চ শুরু হবে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। ৮ এপ্রিল মাঠে গড়াবে দ্বিতীয় টেস্ট।


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন