বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২

‘আমার ঘোষণা আমি দেয়ার সুযোগ পাচ্ছি না’—তামিম ইকবাল

পাপনের জবাব

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৮ জুন ২০২২, ০৩:১৪ অপরাহ্ন

‘আমার ঘোষণা আমি দেয়ার সুযোগ পাচ্ছি না’—তামিম ইকবাল

তামিম ইকবালের টি-টোয়েন্টি খেলা না খেলা নিয়ে আবারও সরগরম ক্রিকেটাঙ্গন। ২০২০ সালের মার্চে সবশেষ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলেন তামিম। চোট, বিশ্রামসহ নানা কারণে লম্বা হয়েছে তার বিরতি।

টি-টোয়েন্টি থেকে ৬ মাসের বিশ্রাম চেয়েছেন দেশসেরা ওপেনার। গত রোববার ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে তামিম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, তাকে টি-টোয়েন্টি নিয়ে পরিকল্পনা জানানোর সুযোগ দেয়া হয় না ও এ নিয়ে বোর্ড তার সঙ্গে যোগাযোগ করেনি। নির্দিষ্ট করে না বললেও তামিমের ইঙ্গিত ছিল টিম ম্যানেজমেন্ট ও বিসিবির দিকে।

তামিমের এ অভিযোগকে সরাসরি মিথ্যাচার বলে উড়িয়ে দেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ভারতীয় এই ক্রিকেট সাইটকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন তামিম ব্যক্তিগতভাবে তাকে বলেছেন তিনি আর টি-টোয়েন্টি খেলতে চান না।

পাপন বলেন, ‘তামিমকে অনেকবার ফেরানোর চেষ্টা করা হলেও সে লিখিত দিয়ে বলেছে টি-টোয়েন্টি খেলবে না। আমি বুঝতে পারছি না সমস্যাটা কোথায়? সে যা বলে তাকে বলতে দিন। এই বিষয়ে আমাদের যা প্রমাণ আছে আমরা তা হাজির করব।’

বিসিবি প্রধানের সাক্ষাৎকার প্রকাশের কয়েক ঘণ্টা পরই তামিম নিজের ফেসবুক পেজ থেকে একটি স্ট্যাটাস দেন। সেখানে দাবি করেন বোর্ডের সঙ্গে যোগাযোগ বা টি-টোয়েন্টি প্রসঙ্গে যা বলেছেন সেটিকে বিভ্রান্তি ছড়ানোর জন্য ভিন্নভাবে পরিবেশন করা হচ্ছে।

তামিম লেখেন, ‘দুই দিন আগে একটি অনুষ্ঠানে আমি স্পষ্ট করে বলেছি, আমার ঘোষণা আমি দেয়ার সুযোগ পাচ্ছি না, অন্যরাই নানা কিছু বলে দিচ্ছে। এখানে বোর্ড কমিউনিকেট করেনি বা তাদের সঙ্গে যোগাযোগ হয়নি, এ রকম কোনো কথা আমি একবারও বলিনি।

‘আমি সেদিন অনুষ্ঠানে যা বলেছি, আজকে আবার বলছি, “টি-টোয়েন্টি নিয়ে আমার যে প্ল্যান, সেটা তো আমাকে বলার সুযোগই দেওয়া হয় না। হয় আপনারা (মিডিয়া) বলে দেন, নয়তো অন্য কেউ বলে দেয়। তো এভাবেই চলতে থাকুক। আমাকে তো বলার সুযোগ দেওয়া হয় না। এতদিন ধরে আমি ক্রিকেট খেলি, এটা ডিজার্ভ করি যে আমি কী চিন্তা করি না করি, এটা আমার মুখ থেকে শোনা। কিন্তু হয় আপনারা কোনো ধারণা দিয়ে দেন, নয়তো অন্য কেউ এসে বলে দেয়। যখন বলেই দেয়, তখন আমার তো কিছু বলার নেই।”

‘এটুকুই বলেছিলাম। এখানে কি উল্লেখ আছে যে কেউ যোগাযোগ করেনি? এ রকম কোনো শব্দ বা ইঙ্গিত আছে? খুবই সাধারণ ভাষায় বলেছি, আমার কথা আমাকে বলতে দেয়া হচ্ছে না। ৬ মাসের বিরতি নিয়েছি, এর মধ্যেও মিডিয়া নানা কথা লিখে বা বলে যাচ্ছে, অন্যরাও কথা বলেই যাচ্ছেন।’

সবশেষে তামিম দাবি করেন বোর্ডের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি নিয়ে তার সব সময়ই যোগাযোগ হচ্ছে ও ম্যানেজমেন্ট তার টি-টোয়েন্টির বিষয়ে সিদ্ধান্ত সম্বন্ধে অবগত।

তিনি যোগ করেন, ‘তারা খুব ভালোভাবেই জানে, টি-টোয়েন্টি নিয়ে আমার ভাবনা কোনটি। আমি স্রেফ নিজে সেই কথাটুকু বলতে চাই, সেই সময়টুকু চাই। সময় হলে আমার সিদ্ধান্ত নিশ্চয়ই আমি জানাব। ৬ মাস হতে তো এখনও দেড় মাসের বেশি বাকি। কিন্তু সেই সময়টার অপেক্ষা কেউ করছে না। এটাই দুঃখজনক।’


সর্বশেষ

উপরে নিয়ে চলুন